নবীজির একচিলতে হাসি

আসসালামু আলাইকুম
প্রি অর্ডার –
হাসি সৌন্দর্যের প্রতীক। অশান্ত মনকে শান্ত করার মোক্ষম হাতিয়ার। কখনও এক টুকরো হাসি ভুলিয়ে দেয় রাশি ‍রাশি দুঃখ-বেদনার যন্ত্রণা। শত বিপদের মাঝেও একচিলতে হাসি সফলতার দ্বার উন্মুক্ত করতে সক্ষম। তাছাড়া হাস্যোজ্জ্বল মানুষকে সবাই ভালোবাসে; আপন ও কাছের ভাবে। হাসির মাধ্যমে আন্তরিকতা ও বন্ধুত্ব সৃষ্টি হয়। অপরদিকে কেউ যদি গোমড়ামুখো হয়, মুখ ভার করে থাকে, তা হলে পরস্পরের মাঝে দূরত্ব ও ব্যবধান তৈরি হয়। ধীরে ধীরে সম্পর্কগুলো কলহ-বিবাদে রূপ নেয়। তাই পরিচিত-অপরিচিত সবার সাথে হাসিমুখে সাক্ষাত করা উত্তম। হাসিমুখে কথা বলা ও বিনয়ী আচরণ ইসলামের অনুপম সৌন্দর্য। তদুপরি এটি পুণ্য অর্জনেরও মাধ্যম। হাদিস শরিফে রাসুল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেন, ‘যে ব্যক্তি নিজের কোনো মুসলিম ভাইকে খুশি করার জন্য এমনভাবে সাক্ষাত করে, যেমনটি সে নিজের জন্য পছন্দ করে, কেয়ামতের দিন বিনিময়ে আল্লাহ তায়ালা তাকে খুশি করবেন।’শুধু তা-ই নয়, নবীজি এটিকে সাদাকা হিসেবেও ঘোষণা করেছেন। নবীজি বলেন, ‘প্রতিটি ভালো কাজ সাদাকা। আর গুরুত্বপূর্ণ একটি ভালো কাজ হলো, অপর কোনো মুসলিম ভাইয়ের সাথে হাসিমুখে সাক্ষাত করা। সেই হাসি, রসিকতা আর খুনসুটি হতে হবে নববি পদ্ধতিতে। বইটির আদি-অন্ত সেই পদ্ধতিরই নির্যাস; ভূমিকায় যার কিছুটা ইঙ্গিত দেওয়ার প্রয়োজন বোধ করছি।

সৌন্দর্যের শ্রেষ্ঠতম উদাহরণ আমাদের নবীজি সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম। তিনি কখনও অট্টহাসি দিতেন না; বরং অনুচ্চ আওয়াজে মুচকি হাসতেন। মুচকি হাসি ছিল তার চিরাচরিত ভূষণ। হযরত আবদুল্লাহ ইবনে হারেস রাদিয়াল্লাহু আনহু থেকে বর্ণিত, তিনি বলেন, ‘আমি রাসুলাল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লামের চেয়ে অধিক মুচকি হাসতে কাউকে দেখিনি।’
সাইয়েদুল মুরসালিনের হাসি কতটা মনকাড়া আর হৃদয়গ্রাহী ছিল, তা আলোচ্য পুস্তকের পাতায় পাতায় উঠে এসেছে।

স্ত্রীর সদুপদেশ গল্প থেকে :–
হজরত সালমা রাযিআল্লাহু আনহা ছিলেন রাসুল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লামের আযাদকৃত বাঁদি এবং আবু রাফে’ রাযিআল্লাহু আনহুর স্ত্রী। একদিন স্বামীর সাথে তার মনোমালিন্য হলো। এরপর তিনি সোজা চলে গেলেন নবিজির দরবারে। নবিজির কাছে গিয়ে এই অভিযোগ দায়ের করলেন,
: ইয়া রাসুলাল্লাহ! আমার স্বামী আমাকে মেরেছেন।
রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম আবু রাফে’কে ডেকে জিজ্ঞেস করলেন,
: কী ব্যাপার আবু রাফে’? তোমাদের দুজনের মধ্যে কী ঘটেছে?
হজরত আবু রাফে’ বললেন,
: হে আল্লাহর রাসুল! ও আমাকে আঘাত করে কথা বলেছে।
নবিজি হজরত সালমার দিকে ফিরে জিজ্ঞেস করলেন,
: সালমা! কী কথা বলে তুমি ওকে আঘাত দিয়েছ?
হজরত সালমা আরজ করলেন,
: ইয়া রাসুলাল্লাহ! আমি তাকে কষ্টদায়ক কোনো কথা বলিনি। আসলে তিনি নামাজরত অবস্থায় বায়ুদূষণ করেছিলেন। আমি তখন বলেছি, ‘রাফেয়ের বাবা! আপনি কি জানেন না, রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম মুসলমানদেরকে এই আদেশ দিয়েছেন- যদি কেউ বায়ুদূষণ করে তাহলে যেন সে ওজু করে নেয়।’ ব্যস, এতটুকুই বলেছিলাম। তাতেই আমাকে মারধর করেছেন।’
পুরো ঘটনা শুনে নবিজি সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম মুচকি হেসে বললেন,
: ওহে আবু রাফে’, (তাকে মারতে গেলে কেন?) সে তো ভালো কথাই বলেছে!

জ্ঞাতব্যঃ
আল্লাহর আনুগত্যের ব্যাপারে একে অপরকে সহযোগিতা করা স্বামী-স্ত্রীর একান্ত কর্তব্য। তারা উভয়ে একে অপর থেকে উপদেশ পাওয়ার অধিকার রাখে। সুতরাং পরস্পর নিজ আত্মীয়দের সাথে সদ্ভাব বজায় রাখার ক্ষেত্রে এবং দাম্পত্য জীবন রক্ষা করার ক্ষেত্রে একে অপরকে সহযোগিতা করা শরিয়াতের মানসা । আল্লাহ তাআলা বলেন,
‘তোমরা সৎকর্ম ও তাকওয়ার ব্যপারে পরস্পরকে সহযোগিতা কর।’
স্ত্রীর প্রতি রূঢ় আচরণ করা মোটেও মুমিনের কাজ হতে পারে না। তার সহনীয় ভুলচুকে ধৈর্যধারণ করাই মুমিনের কাজ।
স্বামী হিসেবে সকলের জানা উচিত, নারীরা মর্যাদার সম্ভাব্য সবক’টি আসনে অধিষ্ঠিত হলেও পরিপূর্ণরূপে সংশোধিত হওয়া সম্ভব নয়। রাসুল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম বলেন,
‘তোমরা নারীদের ব্যাপারে কল্যাণকামী হও। কারণ, তারা পাঁজরের হাড় দ্বারা সৃষ্ট। আর পাঁজরের ওপরের হাড়টি সবচে’ বেশি বাঁকা। (যে হাড় দিয়ে নারীদের সৃষ্টি করা হয়েছে) তুমি একে সোজা করতে চাইলে, ভেঙে ফেলবে। আবার এ অবস্থায় রেখে দিলে, বাঁকা হয়েই থাকবে। তাই তোমরা তাদের কল্যাণকামী হও, এবং তাদের ব্যাপারে সৎ-উপদেশ গ্রহণ কর।’
আলোচিত গল্পটি থেকেও আমরা এই শিক্ষা পাই। অর্থাৎ নারীদের সাথে রুঢ় আচরণ না করা এবং নেক কাজে তার পরামর্শ গ্রহণ করা।

বই :- নবীজির একচিলতে হাসি
মুল বই :- ‘দিহকুন নাবিইয়ি সা. ওয়া তাবাসসুমুহু ওয়া মাজাকুহু’
লেখক :- রিদওয়ান রিয়াদি
অনুবাদ :- সালিম আবদুল্লাহ
প্রকাশনায় :- মিরাজ প্রকাশনী
পৃষ্ঠাসংখ্যা :-২০৮
প্রকাশকাল :-১২ই সেপ্টম্বর ২০২০ (ইন শা আল্লাহ)
গায়ের মূল্য :- ৩০০ টাকা

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are makes.